সময়কাল নিউজ
সময়কাল নিউজ

বড়াইগ্রামে বৃষ্টির পানির নিচে কৃষকের পাঁকা ধান

ওমর ফারুক খান নাটোর জেলা প্রতিনিধি: নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলায় এবার ইরি-বোরো ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। দিগন্ত্ম জোড়া ফসলের মাঠে পাকা ধানের সোনালী শীষে দোল খা”িছল কৃষকের স্বপ্ন। কিন্তু কৃষকের সেই স্বপ্ন তলিয়ে গেছে বৃষ্টির পানিতে।
ঘূর্ণিঝড় আম্পান এর প্রভাবে এক সপ্তাহের টানা বৃষ্টিপাতের কারণে গোটা উপজেলার অধিকাংশ নিম্নাঞ্চল পানিতে তলিয়ে যায়। খাল, বিল, ডোবা, জলাশয় পানিতে ভরে গেছে। ফলে উপজেলার কয়েকশ” একর জমির বোরো ধান বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে। ধানের সঙ্গে তলিয়ে গেছে কৃষকের সারা বছরের স্বপ্ন। এতে বিপাকে পড়েছেন কৃষকরা।
বড়াইগ্রাম উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. ইকবাল হোসেন জানান, উপজেলায় এ বছরে ৪ হাজার ৩০ হেক্টর জমিতে বোরো ধান চাষ হয়েছে। তার মাঝে ৬ হেক্টর জমিতে ধান অতিরিক্ত ভারী বর্ষণের কারণে পানির নিচে তলিয়ে গিয়েছে। তার পরেও ধানের বাম্পার ফলনে উৎপাদন লক্ষ্য মাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করেন উপজেলা কৃষি বিভাগ। তিনি বলেন, পানিতে তলিয়ে যাওয়া বোরো ধান কেটে বাড়ি আনতে কৃষকের কয়েক গুণ বেশি পরিশ্রম হবে। তারপরও সোনালী ফসল ঘরে তুলতে দুর্ভোগ পোহাতে হ”েছ। অতিরিক্ত ভারী বর্ষণের কারণে ভেজা ধান ঘরে তোলা ও ধান মাড়াই করে শুকাতে গিয়ে বিপদে পড়তে হ”েছ কৃষকদের। চোখের সামনেই নষ্ট হয়ে যা”েছ কষ্টে উৎপাদিত শত শত একর জমির ধান।
উপজেলার চান্দাই ইউনিয়ন ও মাঝগাঁও ইউনিয়নের কয়েক জন কৃষক জানান, জমিতে সম্পূর্ণ ধান পেকেছে। কিন্তু কয়েক দিন ধরে বৃষ্টি হওয়ায় জমির পাকা ধান পানিতে তলিয়ে গেছে। ধান গাছ শীষের নীচের দিক থেকে পঁচে যা”েছ। বিপাকে পড়েছি আমরা।

সময়কাল নিউজ