সময়কাল নিউজ
সময়কাল নিউজ

সরাইলে স্বাধীনতার ৫০ বছর পর ব্যক্তি উদ্যোগে ব্রিজ নির্মাণ, ৩০ হাজার মানুষের মুখে হাসি ফুটালেন প্রবাসী

আল মামুন খান, সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধিঃব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে স্বাধীনতার ৫০ বছর পর ব্রিজের মুখ দেখলেন এলাকাবাসী। সরকারিভাবে ব্রিজ নির্মাণের জন্য ৩ গ্রামের হাজার হাজার মানুষ যুগ যুগ ধরে দাবি জানিয়ে আসলেও স্বাধীনতার ৫০ বছরেও এলাকাবাসীর দাবি পূরণ হয়নি। জনপ্রতিনিধিদের আশ্বাসেই পার হয়েছে দীর্ঘ ৫০টি বছর।
অবশেষে ব্যক্তি উদ্যোগে সেতু নির্মাণে এগিয়ে এসেছেন উপজেলার শাহজাদাপুর গ্রামের ৩ং ওয়ার্ডের মধু মিয়া খাদেমের পুত্র প্রবাসী ইমরান হোসেন খসরু খাদেম।
নিজ অর্থায়নে করে দিয়েছেন শাহজাদাপুর খোয়ালাপাড় ব্রীজ। প্রবাসী খসরু খাদেম এর আর্থিক অনুদানে সেতু নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন করেছেন শাহজাদাপুর গ্রামবাসী।
ব্রীজটি নির্মিত হওয়ায় শাহজাদাপুর গ্রামবাসীসহ আশ-পাশের তিন গ্রামের ৩০ হাজার মানুষের যাতায়াতের দারুন সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। বছরের পর বছর ধরে এলাকার হাজার হাজার মানুষ ব্রীজের অভাবে খোয়ালাপাড়া খালটি কষ্ট করে যেখানে নৌকাযোগে পাড়াপাড় হতেন সেখানে অনায়াসে এখন এই ব্রীজের উপর দিয়ে হেটেঁ পারাপার হতে পারছেন। এছাড়া উপজেলা সদরসহ দূর-দূরান্ত থেকে ব্যটারিচালিত অটোরিক্সা, সিএনজি অটোরিক্সা, মোটর সাইকেল ও বাইসাইকেলে করে খোয়ালা নদীর পাড় এসে শাহজাদাপুর গ্রামসহ আশপাশের গ্রামের বাড়িতে গাড়ী যোগে যাওয়া যেখানে ছিল স্বপ্ন, ব্রিজটি নির্মিত হওয়ার পর এখন সহজেই এই সমস্থ যানবাহন নিয়ে গ্রামের বাড়িতে যাতায়ায়াত করতে পারছেন এলাকাবাসী।

কোনো মেম্বার বা চেয়ারম্যান প্রার্থী না হয়েও কেবল নিজ এলাকাবাসীর দুঃখ কষ্টের কথা চিন্তা করে সূদূর প্রবাস থেকে খসরু খাদেম নিঃস্বার্থভাবে নিজের কষ্টার্জিত অর্থ দিয়ে এই ব্রিজটি নির্মাণ করে দেওয়ায় খুশি এলাকার ৩গ্রামের ৩০ হাজার মানুষ।

স্বাধীনতার ৫০ বছরেও যে কাজটি কোনো জন প্রতিনিধি করতে পারেন নি, সেই কাজটি করে দেখিয়েছেন প্রবাসী খসরু খাদেম।

অবহেলিত শাহজাদাপুরবাসী বলেন, জনসেবার মহৎ ইচ্ছা থাকলে অসাধ্যকে যে সাধন করা যায় তার এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন প্রবাসী খসরু খাদেম। শুধু ব্রিজের অর্থায়ন নয় ইতিপূর্বে শাহজাদাপুর গ্রামে বিদ্যূৎ সংযোগেও সাধ্যমত অর্থ দিয়ে সহযোগিতা করেছিলেন তিনি। এছাড়াও গ্রামের মানুষের যে কোনো প্রয়োজনে তিনি আর্থিক সাহায্য দিয়ে আসছেন সুদূর প্রবাস থেকে।

সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম খাদেম বলেন, আমি চেয়ারম্যান হয়ে যে কাজটি করতে পারিনি আজ খসরু খাদেম এই কাজটি করে গ্রামকে দেখিয়ে দিয়েছেন। এতে গ্রামের মানুষ অনেক খুশি। এখন আর নৌকা লাগবেনা সরাসরি মোটরসাইকেল সিএনজি নিয়ে যার যার বাড়িতে যেতে পারবে।
খোয়ালাপাড় ব্রীজ নির্মাণে খুশি শাহজাদাপুর গ্রামবাসী প্রবাসী ইমরান হোসেন খসরু খাদেমের জন্য প্রাণভরে দোয়া করছেন সেই সাথে খসরু খাদেমের মত এমন মানবিক মনের মানুষ যেন বাংলার প্রতিটি গ্রামে জন্ম নেয় সেই কামনা করছেন।
সেই সাথে এই ব্রীজটি দিয়ে মানুষের যাতায়াতের স্থায়ী ব্যবস্থা হিসেবে সেখানে পাকা ব্রিজ নির্মাণে সরকারের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের প্রতি ফের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

সময়কাল নিউজ