সময়কাল নিউজ
সময়কাল নিউজ

২১ আগস্ট বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি কলঙ্কময় দিন

নিজস্ব প্রতিনিধি : ২০০৪ সালের (২১ আগস্ট) মুহুতের মধ্যে গ্রেনেডের বিকট বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে ঢাকার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ। মানুষের আর্তনাদ আর কাতর ছোটাছুটিতে সেখানে তৈরি হয় এক বিভীষিকাময় পরিস্থিতি। এই উপলক্ষে বিজয়নগর শহীদ ধীরেন্দ্র নাথ দত্ত ও ভূপেষ চৌধুরী গন পাঠাগারের আয়োজনে বিকাল চার ঘটিকার সময় পাঠাগারের হল রুমে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল শহীদ ধীরেন্দ্র নাথ দত্ত ও ভূপেষ চৌধুরী গন পাঠাগারের সভাপতি সাবেক ছাএনেতা মৃনাল চৌধুরী লিটন উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বিজয়নগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি মো : জসীম উদ্দিন, প্রধান আলোচক বিজয়নগর পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদুর রহমান মান্না, বিজয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মির্জা হাসান তারেক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারন সম্পাদক হোসাইন আহমেদ দুলাল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক কবি ম প স তাবরীজ সরকার , উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আইনুল ইসলাম ডালিম ,উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য কার্তিক চৌধুরী, ইছাপুরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো ইসয়াক সরকার, সাধারন সম্পাদক নুরুল আমীন, অগ্রনী ব্যাংক সিবিএ সভাপতি আবুল মোবারক উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মুখলেসুর রহমান লিটন, উপজেলা যুবলীগের সহ সম্পাদক নির্মল সুএধর, ইছাপুরা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি রাস্টু মিয়া, সিংগারবিল ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মো :সুহেল, উপজেলা সেচ্চাসেবক লীগ নেতা ও সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের নেতা মো: আসলাম,জেলা ছাএলীগ সাবেক নেতা কাজী আশিকুর ইসলাম, বিজয়নগর উপজেলা ছাএলীগ সিনিয়র সহ সভাপতি মো এমদাদ সাগর , বিজয়নগর উপজেলা ছাএলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মো শিব্বির আহমেদ উক্ত অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বিজয়নগর উপজেলা ছাএলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম হানিফ উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্হিত ছিলেন উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী বিদ্যানিকেতনের প্রধান শিহ্মক মো: রেজাউল আমীন , শিক্ষক পিন্টু মালাকার সহ পাঠাগারের সদস্যবৃন্দ আলোচনা সভায় বক্তরা বলেন ২১ আগস্ট বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি কলঙ্কময় দিন। ২০০৪ সালের এ দিনে বিএনপি-জামাত জোট সরকারের সরাসরি পৃষ্ঠপোষকতায় ঢাকায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগ আয়োজিত সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদবিরোধী সমাবেশে বর্বরতম গ্রেনেড হামলা চালানো হয়। এ হামলার মূল লক্ষ্য ছিল স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব, গণতন্ত্র এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ভূলুণ্ঠিত করা এবং আওয়ামী লীগ ও বাংলাদেশকে নেতৃত্বশূন্য করে হত্যা, ষড়যন্ত্র, জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, দুর্নীতি ও দুঃশাসনকে চিরস্থায়ী করা।’
এ সময় খালেদা জিয়া এবং বিএনপি নেতাদের দেয়া বক্তব্যগুলো স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, ‘এর কয়দিন আগেই খালেদা জিয়া এবং বিএনপি বলেছিল হাসিনা প্রধানমন্ত্রী তো দূরের কথা বিরোধী দলের নেতাও হতে পারবে না। আর আওয়ামী লীগ আগামী একশ’ বছরেও ক্ষমতায় যেতে পারবে না। কারণ আওয়ামী লীগকে গ্রেনেড হামলার মাধ্যমে নিশ্চিহ্ন করাই ছিল তাদের পূর্বপরিকল্পনা‘
অনুষ্ঠান শেষে দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের অনুষ্ঠিত হয় উক্ত দোয়া পরিচালনা করেন মাওলানা আশরাফুল আলম।

সময়কাল নিউজ